1. mahadihasaninc@gmail.com : admin :
  2. hossenmuktar26@gmail.com : Muktar hammed : Muktar hammed
হৃদয়কে প্রশান্ত করুন, কৃতজ্ঞতার চাষ করুন - dailybanglakhabor24.com
  • June 8, 2024, 8:33 pm

হৃদয়কে প্রশান্ত করুন, কৃতজ্ঞতার চাষ করুন

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, মার্চ ৩০, ২০২৩ | রাত ২:৩৩
  • 70 Time View

 

মুফতি মেনক

 

 

এক: রমজান আপনাকে শান্ত ও প্রশান্ত করুক। আপনার আত্মার জন্য এটি প্রয়োজন। এটি আপনাকে স্বচ্ছ ও পরিশুদ্ধ করুক এবং সর্বশক্তিমান আপনার পথে পাঠিয়েছেন এমন অসংখ্য আশীর্বাদের কথা আপনাকে স্মরণ করিয়ে দিক। আপনার হৃদয় কৃতজ্ঞতায় ভরে উঠুক। সর্বশক্তিমানের নৈকট্য পেতে আপনি যা করেন তা করার সাথে সাথে হৃদয়কে আরও নরম হতে দিন।

দুই: নিজের প্রতি মনোযোগ দিন। আপনার নিজের কাজের কথা মনে রাখুন। তুলনা শুরু করবেন না এবং আপনার প্রতিটি আশীর্বাদ নষ্ট করবেন না। মনে রাখবেন, অন্য কারো লনে ফোকাস করে আপনার ঘাস কখনও সবুজ হবে না। আপনার নিজের ক্ষেতে পানি দিন, নিজের বিষয়াদি পরিচর্যা করুন। আপনার শক্তি ও কৃপার প্রতি পুনরায় ফোকাস করুন। আপনি আপনার লক্ষ্যে পৌঁছাবেন।

পূনশ্চ:

এক. কোন বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে খুব তাড়াহুড়া করবেন না। শব্দগুলি ব্যবহারের আগে সর্বদা এর ফলাফল পরিমাপ করুন। মনে রাখবেন, মানুষ হিসাবে আমরা যা ঘটছে বলে মনে করে সে ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করি, অনেক সময় দেখা যায়, আসলেই সেটি ঘটছে না। তাই সবকিছু নির্ভর করে আমাদের ব্যাখ্যার উপর।

দুই: লোকদের যা করতে হবে মনে করেন তা করার জন্য সময় এবং অবকাশ দিন। ব্যক্তিকেন্দ্রীক ব্যবস্থাপনা পরিত্যাগ করুন। আপনি পরামর্শ এবং নির্দেশনা দিতে পারেন কিন্তু আপনি কাউকে জোর করতে পারবেন না। আপনি তাদের সুনির্দেশিত হওয়ার জন্য প্রার্থনা করতে পারেন এবং বাকিটা সর্বশক্তিমানের কাছে ছেড়ে দিতে পারেন। তিনি সত্য পথ প্রদর্শনের মালিক। তিনি যাকে ইচ্ছা তাকে পথ দেখান।

তিন: আপনি নিজেকে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সবচেয়ে ভাল জানেন। কিন্তু যে মুহুর্তে কেউ আপনার সম্পর্কে কিছু বলে তখন আপনি ভেঙ্গে পড়েন। আপনি নিজেকে সন্দেহ করা শুরু করেন, আপনি জিনিসগুলি নিয়ে প্রশ্ন শুরু করেন। না এটি করবেন না। এই ব্যক্তি আপনার অবস্থার মধ্য দিয়ে যায়নি। আপনার কেবল উদ্বিগ্ন হওয়া উচিত সর্বশক্তিমান আল্লাহ আপনাকে কীভাবে দেখছেন তা নিয়ে।

চার: আপনার মনকে সুন্দর চিন্তাভাবনায় অভ্যস্ত করুন এবং নেতিবাচক চিন্তাভাবনা থেকে দূরে থাকতে প্রশিক্ষণ দিন। এমনকি সেসব ভাবনাকেও প্রশ্রয় দেবেন না যা আপনার কোনও উপকারে আসবে না। আপনার মন থেকে ইতিবাচক চিন্তাভাবনাগুলি বের করে আনুন এবং আপনার চোখের সামনে তার উদ্ভাসিত হওয়া দেখুন। দেখবেন আপনি কতটুকু অগ্রগতি অর্জন করছেন।

পাঁচ: যখন আপনাকে বিশ্বাস করা হয় তখন এটিকে গুরুত্ব সহকারে নিন। বিশ্বাস হলো ভঙ্গুর। কারণ প্রায়শই বিশ্বাস অবাধে করা হয়, এটি সহজেই নিশ্চিতও করা হয়। একবার কেউ আপনার সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করার পরে, এটি ফের অর্জন করা অসম্ভব না হলেও বেশ কঠিন। বিশ্বাস নষ্ট করার দাগগুলি এত গভীর হতে পারে যে কোনও ব্যক্তির মনে তা চিরকাল পর্যন্ত গেঁথে থাকতে পারে।

দ্রষ্টব্য:

যারা বিশ্বাস করেছে এবং আল্লাহর স্মরণে যাদের হৃদয় প্রশান্ত হয়। জেনে রাখ, আল্লাহর স্মরণেই হৃদয় প্রশান্ত হয়। যারা বিশ্বাস করে ও সৎকর্ম করে, কল্যাণ ও শুভ পরিণাম তাদেরই। (সূরা আর রাদ:২৮-২৯);

যদি তোমরা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ কর, তাহলে অবশ্যই আমি তোমাদের প্রতি আমার নেয়ামত আরও বৃদ্ধি করে দেব। (সুরা ইবরাহিম : ৭)

না এটা সঙ্গত নয়! যখন পৃথিবীকে ভেঙ্গে পূর্ণ-বিচূর্ণ করা হবে। আর যখন তোমার প্রতিপালক আগমন করবেন আর সারিবদ্ধভাবে ফিরিশতাগণও (সমুপস্থিত হবে)। সেদিন জাহান্নামকে আনয়ন করা হবে এবং সেদিন মানুষ উপলব্ধি করতে পারবে; কিন্তু তার উপলব্ধি কি কোন কাজে আসবে? সে বলবে, ‘হায়! আমার এ জীবনের জন্য আমি যদি কিছু অগ্রিম পাঠাতাম!’ সেদিন তাঁর (আল্লাহর) শাস্তির মত শাস্তি অন্য কেউ দিতে পারবে না। আর তাঁর বন্ধনের মত বন্ধন কেউ বাঁধতে পারবে না।
হে প্রশান্ত মন, তুমি তোমার পালনকর্তার নিকট ফিরে যাও সন্তুষ্ট ও সন্তোষভাজন হয়ে। অতঃপর আমার বান্দাদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাও এবং আমার জান্নাতে প্রবেশ কর। (সুরা ফাজর : ২১-৩০)

রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, জান্নাতবাসীদের কোনো আফসোস থাকবে না। তবে সে সময়ের জন্য শুধু আফসোস থাকবে, যে সময়টুকু দুনিয়াতে জিকির (আল্লাহর স্মরণ) ও দরুদ (প্রশংসা) ব্যতীত অতিবাহিত করেছে।’ (মুসনাদে আহমদ : ৯৯৬৫);

ধারাবাহিক পর্ব……..

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category