1. mahadihasaninc@gmail.com : admin :
  2. hossenmuktar26@gmail.com : Muktar hammed : Muktar hammed
সমঝোতার সুযোগ নিয়ে জিজ্ঞাসা ♦ মার্কিন প্রাক-পর্যবেক্ষকদের টানা বৈঠক ♦ পথ খোলা রাখেনি বিএনপি : আওয়ামী লীগ ♦ নির্বাচনব্যবস্থা প্রশ্নবিদ্ধ : বিএনপি ♦ অনিশ্চয়তা আছেই : জাতীয় পার্টি - dailybanglakhabor24.com
  • June 8, 2024, 9:41 pm

সমঝোতার সুযোগ নিয়ে জিজ্ঞাসা ♦ মার্কিন প্রাক-পর্যবেক্ষকদের টানা বৈঠক ♦ পথ খোলা রাখেনি বিএনপি : আওয়ামী লীগ ♦ নির্বাচনব্যবস্থা প্রশ্নবিদ্ধ : বিএনপি ♦ অনিশ্চয়তা আছেই : জাতীয় পার্টি

  • Update Time : মঙ্গলবার, অক্টোবর ১০, ২০২৩ | রাত ৩:৪১
  • 34 Time View

বিশেষ প্রতিনিধি
দিনভর দেশের প্রধান তিন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠক করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দল। দিনের শুরুতে দেড় ঘণ্টা বৈঠক হয়েছে বিএনপির সঙ্গে। দুপুরে তিন ঘণ্টা আলোচনা হয়েছে আওয়ামী লীগের সঙ্গে। বিকালে এক ঘণ্টা বৈঠক হয় জাতীয় পার্টির সঙ্গে।
এসব বৈঠকে আলোচনায় মার্কিন প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষকরা জানতে চেয়েছেন নির্বাচন নিয়ে দ্বিমুখী অবস্থানে থাকা দলগুলোর মধ্যে রাজনৈতিক সমঝোতার কোনো সুযোগ আছে কি না। দলগুলোর কাছে মার্কিন দলটি জানতে চেয়েছে বর্তমান পরিস্থিতিতে সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূল নির্বাচন সম্ভব কি না এবং এমন একটি নির্বাচন আয়োজনে কী কী করা যেতে পারে। জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট (আইআরআই) ও ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক ইনস্টিটিউট (এনডিআই)-এর যৌথ প্রাক-নির্বাচন মূল্যায়ন মিশন সোমবার সকালে ঢাকার ওয়েস্টিন হোটেলে মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসের সঙ্গে প্রাতরাশ বৈঠকের মাধ্যমে দিনের শুরু করেন। মার্কিন রাষ্ট্রদূত ও দূতাবাসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে ঘণ্টাব্যাপী এই বৈঠকে প্রতিনিধি দলের কো-চেয়ার স্টেট ফর সাউথ এশিয়ান অ্যাফেয়ার্সের সাবেক অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি কার্ল এফ ইনডারফুর্থ এবং ইউএসএআইডি অ্যাডমিনিস্ট্রেটরের সাবেক ডেপুটি বনি গ্লিক ছাড়াও প্রতিনিধিদের সদস্য মালয়েশিয়ার সাবেক হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস সদস্য মারিয়া চিন আবদুল্লাহ, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের সাবেক সহযোগী কাউন্সেল জামিল জাফর, এশিয়া-প্যাসিফিকের এনডিআই রিজিওনাল ডিরেক্টর মনপ্রীত সিং আনন্দ ও এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলে আইআরআইয়ের সিনিয়র ডিরেক্টর জোহানা কাও উপস্থিত ছিলেন।
ওয়েস্টিন থেকে বেরিয়ে মার্কিন দলটি যায় রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে। সকাল ১০টা ২০ মিনিটে শুরু হয়ে দেড় ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকে বিএনপির প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সাত সদস্যের প্রতিনিধি দলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ইসমাইল জবিউল্লাহ, দলের সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ, মানবাধিকারবিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে এক ব্রিফিংয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও দলের আন্তর্জাতিক উইংয়ের প্রধান আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।
বৈঠকে মার্কিন প্রতিনিধি দল কী জানতে চেয়েছে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আমীর খসরু বলেন, ঘুরেফিরে একটাই প্রশ্ন সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, গ্রহণযোগ্য, অংশগ্রহণমূলক ও আন্তর্জাতিক মানের বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন হবে কি না, সুষ্ঠু নির্বাচন হতে হলে কী কী প্রয়োজন? এসব বিষয়ে তারা জানতে চেয়েছে। আমরা বিএনপির পক্ষ থেকে বলে আসছি- শেখ হাসিনার অধীনে কোনো সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়। বিগত দুই-তিনটি নির্বাচনে তারা বাংলাদেশের জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। আজকে যাদের বয়স ৩০-৩২ বছর হয়েছে, তারা বিগত নির্বাচনগুলোতে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেনি। তারা তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করতে পারেনি।
অবস্থার কোনো পরিবর্তন হয়নি, বরং অবনতি হয়েছে। বৈঠকে বিএনপির নেতারা বলেছেন, ‘বাংলাদেশে নির্বাচনব্যবস্থা প্রশ্নবিদ্ধ। শুধু দেশে নয়, বিদেশেও প্রশ্নবিদ্ধ। সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, আন্তর্জাতিক মানের বিশ্বাসযোগ্য, অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চায় বাংলাদেশের মানুষ। বিশ্বের অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশগুলোও এটা চায়। কিন্তু শেখ হাসিনার অধীনে দেশে সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন সম্ভব নয়। ’ সফররত মার্কিন প্রাক-নির্বাচনী প্রতিনিধি দলকে এমনটিই জানিয়েছে বিএনপি। আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, এর আগে ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধি দল এসেছিল। তারা বাংলাদেশের সব শ্রেণির মানুষের সঙ্গে কথা বলে গেছেন এবং যাওয়ার পর সিদ্ধান্ত দিয়েছেন যে, বাংলাদেশে তারা কোনো পর্যবেক্ষক পাঠাবে না। কারণ বাংলাদেশে নির্বাচনের পরিবেশ নেই। যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রতিনিধি দল এসেছে- একই উদ্দেশ্য নিয়ে। তারা বাংলাদেশে নির্বাচনী পরিবেশ পর্যবেক্ষণ করতে এসেছে যে, আগামী দিনে বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে কি না! এখানে সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ আছে কি না, সেটি তারা দেখবে। গণতান্ত্রিক বিশ্ব সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা বলেই কাজ শেষ করছে না, তারা অ্যাকশনে যাচ্ছে। স্যাংশন দিচ্ছে, ভিসানীতি প্রয়োগ করছে, মেসেজ দিচ্ছে প্রতিনিয়ত।

সমঝোতার কোনো পথ খোলা রাখেনি বিএনপি- আওয়ামী লীগ : বিএনপির সঙ্গে বৈঠকের পর বনানীর শেরাটন হোটেলে দুপুরে বৈঠক করে মার্কিন প্রাক-নির্বাচনবিষয়ক পর্যবেক্ষক দল। বৈঠকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে উপস্থিত ছিলেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান, আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক ডক্টর শাম্মী আহমেদ, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক সম্পাদক ডক্টর সেলিম মাহমুদ ও কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোহাম্মদ আলী আরাফাত।
পরে ওবায়দুল কাদের বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক-নির্বাচনী ১২ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আমাদের বৈঠক হয়েছে। তারা পরিস্থিতি জানতে চেয়েছে, আমাদের অবস্থান জানতে চেয়েছে। নির্বাচনের পরিবেশ, বাস্তব অবস্থা ও কোনো সহিংসতার আশঙ্কা আছে কি না এসব বিষয় তারা পর্যবেক্ষণ করছে।
প্রতিনিধি দল কোনো প্রস্তাব দিয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, তারা কোনো প্রস্তাব দেয়নি। আলোচনায় উঠে এসেছে বিএনপির দাবি। তারা কথায় কথায় বলেছে আপনাদের মধ্যে কি এখনো কোনো সমঝোতার পথ খোলা আছে কি না। আমরা বলেছি- সেই পথ বিএনপি বন্ধ করে রেখেছে। তত্ত্বাবধায়কের মতো একটি ডেড ইস্যু, প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ, সংসদ ভেঙে দেওয়া এবং নির্বাচন কমিশন বাতিলের দাবির মুখে কী করে সমঝোতা হয়? প্রধানমন্ত্রী কেন পদত্যাগ করবেন? সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়েছে নাকি প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় নিতে হবে এ জন্য রাস্তায় জনগণের উপচে পড়া ঢল? এ সময় দেশের ৭০ শতাংশ লোক শেখ হাসিনাকে ভোট দিতে উন্মুখ হয়ে আছে এমন কথা প্রতিনিধি দলকে জানিয়েছেন বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, প্রতিনিধি দল আমাদের বলেছে, তারা কোনো বিষয়ে মধ্যস্থতা করতে আসেননি। তাদের কথাবার্তা পজিটিভ মনে হয়েছে। তারা কোনো পক্ষ নিয়ে এসেছে, এমন মনে হয়নি। আমরাও বলেছি, আমরা একটি অবাধ, নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে জাতির কাছে অঙ্গীকারবদ্ধ। আমরা সেভাবেই কাজ করছি। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, প্রতিনিধি দলকে আমরা আমাদের অবস্থান পরিষ্কার করেছি। গণতন্ত্রের চ্যালেঞ্জ নিয়ে কথা হয়েছে। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে জাতির কাছে প্রধানমন্ত্রীর যে অঙ্গীকার সেটি তাদের জানিয়েছি।
নির্বাচন নিয়ে অনিশ্চয়তা আছে- জাতীয় পার্টি : বিকাল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত ওয়েস্টিন হোটেলে জাতীয় পার্টির সঙ্গে বৈঠক করে মার্কিন প্রাক-নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দল। বৈঠকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের সঙ্গে অংশ নেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর রানা মোহাম্মদ সোহেল (অব.), সংসদ সদস্য ও চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা মাসরুর মওলা ও আহসান আদেলুর রহমান আদেল।
পরে জি এম কাদের বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দল নির্বাচনের বিষয়ে আমাদের কাছে জানতে চেয়েছে- আমরা যা জানি বলেছি। বিশেষ করে নির্বাচনে অনিয়ম কীভাবে হয় ও এটা রোধ করা যায় কীভাবে- সে বিষয়ে জানতে চেয়েছে। আমরা যতটুকু জানি বলেছি। নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা বলব না অনিশ্চয়তা আছেই। এক প্রশ্নের জবাবে জি এম কাদের বলেন, দেশের সবচেয়ে বড় দল বিএনপি নির্বাচন করবে না, আন্দোলন করবে। সেখানে সহিংসতা হতে পারে; নানা ধরনের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি দেখা দিতে পারে। এ জন্য আমরা নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা বলব না, তবে অনিশ্চয়তা তো আছেই। তারা (যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনী পর্যবেক্ষক দল) সবার অংশগ্রহণে কীভাবে নির্বাচন করা যায় তা জানতে চেয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের দেশে বিগত দিনে কীভাবে নির্বাচন হয়েছে, এখানে কীভাবে অসুবিধা বা সুবিধা হয়েছে সেগুলোর বিষয়ে জানতে চেয়েছে। আমরা তাদের বিস্তারিত বলার চেষ্টা করেছি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category